Breaking News

প্রেমে ব্যর্থ হয়ে বাবা-মায়ের পছন্দের মেয়েকে বিয়ে করতে বাধ্য হন এই তারকারা..

বিনোদন জগতে, যত প্রেমের গল্প দেখা যায়, বাস্তব জীবনেও অনেকাংশে তা ঘটে। বলিউড দুনিয়া হোক বা টিভি দুনিয়া, এমন অনেক তারকা রয়েছেন যাদের প্রেমের কাহিনী সবার মুখে মুখে ছিল। টিভি ইন্ডাস্ট্রিতে এমন অনেক তারকা ছিলেন যারা প্রেমে পড়েছেন একে অপরের এবং সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন। আবার এমন অনেক তারকা ছিলেন যারা প্রেম করেছিলেন বটে কিন্তু তা পূর্ণতা পায়নি। তারা অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ করে প্রমান করে দিয়েছেন যে বিয়ের পরেও প্রেম হতে পারে এবং বিয়েও সফল হতে পারে।

আজ আমরা এমনই কিছু দম্পতিদের কথা আপনাদেরকে বলবো। নিকেতন ধীর, যিনি ‘চেন্নাই এক্সপ্রেস’ ছবির ‘থাঙ্গাবাল্লি’ হয়েছিলেন, তিনি তাঁর সুন্দর চেহারার কারণে সবার খুব পছন্দের হিরো। ইন্ডাস্ট্রিতে কারোর সাথে খুব বেশি সংযুক্ত বোধ করেননি তিনি, এরপর তার জীবনে আসে কৃতিকা সেঙ্গার। নিকেতনের জন্য কৃতিকাকে তার বাবা পঙ্কজ ধীর পছন্দ করেছিলেন, আসলে পঙ্কজ ধীর একটি শর্ট ফিল্ম করার সময় কৃতিকার সান্নিধ্যে এসেছিলেন, এরপর তিনি নিকতনের সঙ্গে কৃতিকার পরিচয় করিয়ে দেন এবং দুজনেই একে অপরকে পছন্দ করেন। 2014 সালের নিকেতন এবং কৃতিকার বিয়ে হয়।

‘শ্বশুরাল গেন্দা ফুল’ এর ঈশানের চরিত্রে অভিনয় করা জয় সোনি প্রতিটি মেয়েরই পছন্দ ছিল, জয় সোনির মহিলা ফ্যান ফলোইংও উল্লেখযোগ্যভাবে বৃদ্ধি পেয়েছিল, তবে তিনি তার বাবা-মার পছন্দে বিয়ে করেছিলেন। তার বাবা-মা পূজার সাথে জয়ের দেখা ঠিক করেছিলেন এবং যখন দুজনের দেখা হয়েছিল তখন মনে হয়েছিল তারা একে অপরের জন্যই তৈরি। এই জুটি একসাথে ডান্স রিয়েলিটি শো ‘নাচ বালিয়ে’তে এসেছিল।

মিহিকা যিনি টিভি শো ‘ইয়ে হে মোহাব্বাতে’ তে ঈশিতা ভাল্লার বোনের ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন, এতে তিনি প্রচুর সাফল্য পেয়েছিলেন। তার সৌন্দর্যে সবাই মুগ্ধ ছিল। মা-বাবা তাকে এন.আর.আই ব্যবসায়ী আনন্দ কাপাইয়ের এর সাথে পরিচয় করিয়ে দেন এবং তাদের দুজন দুজনকে পছন্দ হয় এবং তিনি বিয়ের পরে আমেরিকায় স্থায়ী হন। মিহিকার বর্তমানে একটি ছেলেও আছে।

একসময় দিব্যাঙ্কা ত্রিপাঠির সাথে শরৎ মালোত্রার নাম জড়িয়েছিল, দুজনের সম্পর্ক আট বছর ছিল কিন্তু বিয়ের সময় শরৎ মালোত্রা চলে যান, এমন পরিস্থিতিতে তার কাছ থেকে দূরে সরে যান। সেই সময় তার বাবা-মায়ের পছন্দের মেয়েটিকে বিয়ে করেন। টিভি শো ‘দিয়া অর বাতি হাম’ এর মাধ্যমে বিখ্যাত হওয়া আনাস রশিদ বিয়ে করে জীবনসঙ্গী বেছে নেন। হিনা ইকবাল একজন কর্পোরেট প্রফেশনাল। আনাসের বাবা-মা তাকে পছন্দ করেছিলেন এবং তারা দুজনই প্রথম দেখাতেই বিয়ের জন্য হ্যাঁ বলে দিয়েছিলেন।

করন প্যাটেল, যিনি টিভি শো ‘ইয়ে হ্যায় মোহাব্বাতে’-এ করন ভাল্লার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন, তিনি একটি সাজানো বিয়েও করেছেন। সম্ভবত আপনি জানেন না যে, অভিনেতা অভয় ভার্গব, যিনি শোতে করণের শ্বশুরের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন, তিনি বাস্তব জীবনেও তার শ্বশুর। তার মেয়ে অঙ্কিতার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন টিভি অভিনেতা আলি গনি, দেখা করার পর দু’জনে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন ও বিয়ে করেন এবং আজ এই দম্পতি একে অপরকে নিয়ে খুব ভালোআছে, খুব খুশি আছে।

About Web Desk

Check Also

১৯০ কোটি টাকা লটারীতে জিতলেন এই মহিলা! কিন্তু তিনি না জেনে টিকিট সহ জামা ওয়াশিং মেশিনে ঢুকিয়ে ফেলে, তারপর যা হলো

লটারি খেলাটিও একটি চমৎকার খেলা। ভাগ্য সহায় থাকলে যে কেউ মাটি থেকে আকাশে, আবার আকাশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.