Breaking News

মাধুরী দীক্ষিতের অতীতের এই কষ্টময় জীবনের পরিস্থিতি গুলো কখনো কোনদিন কারো কাছে শেয়ার করেনি, জানলে চোখে জল এসে যাবে

বলিউডের দিগ্গজ অভিনেত্রীদের মধ্যে অন্যতম হলেন মাধুরী দীক্ষিত। এই 54 বছর বয়সী অভিনেত্রীর সৌন্দর্য এই সময়ের যেকোনো অভিনেত্রীকে টক্কর দেয়ার জন্য যথেষ্ট। তিনি আজও নিজের লুক ও ফিটনেসের যথাযথ খেয়াল রাখেন। মাধুরী দীক্ষিত বলিউডে “অবোধ” ফিল্ম থেকে ডেবিউ করেন। তার ক্যারিয়ারের ইনিশিয়াল স্টেজে সঞ্জয় দত্তের সাথে সম্পর্ক হয়। কিন্তু এই সম্পর্ক দীর্ঘস্থায়ী হতে পারেনা।

সঞ্জয় দত্তের বায়োপিক “সঞ্জু” তে মাধুরী দীক্ষিত ও সঞ্জয় দত্তের ঘটনাও তুলে ধরার কথা হয়েছিল। দর্শকেরা ভেবেও নিয়েছিল এত বছর যেই ঘটনায় পর্দা ফেলে রাখা হয়েছিল, তা এবার প্রকাশ পাবে। কিন্তু তা সম্ভব হয় নি। শোনা যায় শেষ মুহূর্তে মাধুরী দীক্ষিত নিজে ক্লিপটি বাদ করান। মাধুরী দীক্ষিত চাননি এই অতীত তার বর্তমান সময়ে কোনোরকম দাগ আনুক। তিনি স্বামী সন্তান নিয়ে সুখে আছেন।

তার এই সুখের সংসারে কোনো আঁচ তিনি আসতে দিতে চাননি। সঞ্জয় দত্ত তো মাধুরী দীক্ষিতকে বিয়ে করবেন এই কথাও স্বীকার করেছিলেন। কিন্তু তাদের এই মিষ্টি সম্পর্কে যেন কারোর নজর লেগে যায়। 1993 র মুম্বাই বো”ম ব্লা”স্টে সঞ্জয় দত্তকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর তাকে একটি ফোন করার সুযোগ দেওয়া হলে তিনি এক অভিনেত্রীকে ফোন করেন।

কিন্তু সেই অভিনেত্রীর মা ফোন তোলেন। সেই অভিনেত্রী ছিলেন মাধুরী দীক্ষিত। কিন্তু মাধুরী দীক্ষিতের মা ফোন তুলে জানান সঞ্জয় দত্তের সাথে কোনো সম্পর্ক রাখতে চান না তার মেয়ে। এই ঘটনার পর 16 মাস জেলে থাকেন সঞ্জয় দত্ত। তার জেলে থাকার সময় মাধুরী না তার সাথে দেখা করতে গেছেন, আর না-ই জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর কোনো যোগাযোগ করেছেন।

সেই একটি ঘটনার কারণে তাদের দুজনের পথ চিরতরে আলাদা হয়ে যায়। তারপর থেকে শুরু করে আজও সঞ্জয় দত্তকে নিয়ে কোনো মন্তব্য করেন না মাধুরী। এমনকি এই নিয়ে তাকে প্রশ্ন করা হলেও চুপ থাকেন তিনি। তাদের সম্পর্ক শেষ হয়ে যাওয়ার পর 1999 সালে আমেরিকার কার্ডিয়াক সার্জন ডাঃ শ্রীরাম নেনে কে বিয়ে করেন মাধুরী। আজ তাদের দুই ছেলে আছে। বর্তমানে সুখী দাম্পত্য জীবন কাটাচ্ছেন তারা।

About Web Desk

Check Also

সৌন্দর্যের দিক থেকে দীপিকা পাডুকোনকে হার মানাবে রণবীর সিং এর বোন।

বিখ্যাত অভিনেতা রণবীর সিং তার ভিন্ন স্টাইল এবং উজ্জ্বল অভিনয়ের জন্য পরিচিত এবং তিনি প্রায়ই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *