Breaking News

খাওয়া-ঘুম ত্যাগ করেছেন শাহনাজ! সিদ্ধার্থকে হারিয়ে আজ তার এই অবস্থা!

“বিগ বস সিজন 13” এর বিজয়ী সিদ্ধার্থ শুক্লা 2 রা সেপ্টেম্বর শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। কালার্স এর “বালিকা বধূ” ধারাবাহিকের মধ্যে দিয়ে এন্টারটেনমেন্ট জগতে তার পদার্পণ। নিজের অভিনয়ের মাধ্যমে দর্শকদের মন জিতেছিলেন তিনি। কিন্তু তার জনপ্রিয়তা শীর্ষে পৌঁছায় “বিগ বস সিজন 13” এ অংশগ্রহণ করার পর। এই রিয়্যালিটি শো’তে প্রথম দিকে আপাতদৃষ্টিতে তাকে অহংকারী মনে হলেও দিন এগোনোর সাথে সাথে সিদ্ধার্থের ভালো দিকগুলো মানুষের সামনে আসতে থাকে। আসল সিদ্ধার্থকে অনেকটা চেনার পর তার ফ্যান ফলোইং বেড়ে যায়।

যে কারণে :বিগ বস সিজন 13″ এর বিজয়ী তিনি হন। সিদ্ধার্থেরা তিন ভাইবোন ছিলেন। সবথেকে ছোট ছিলেন সিদ্ধার্থ। তার জীবনে মা ও দিদি সবথেকে কাছের। ভাই বোনদের সাথে বয়সের অনেকটা পার্থক্য হওয়ায় ছোটবেলায় বেশিরভাগ সময়ই তিনি তার মায়ের সাথে কাটিয়েছেন। সিদ্ধার্থ এক ইন্টারভিউতে জানিয়েছিলেন তিনি ছোটবেলায় মাকে ছাড়া থাকতে পারতেন না। তাই তার মা তাকে কোলে নিয়েই রান্না করতেন। সিদ্ধার্থ আরও বলেছিলেন তার সফলতার পিছনে তার মায়ের অবদান অনস্বীকার্য।

মা আর দিদির পর আর কেউ যদি সিদ্ধার্থের এত কাছের হয়ে থাকে তবে তা ছিলেন শাহনাজ গিল। শাহনাজ একজন পাঞ্জাবি অভিনেত্রী। শাহনাজের সাথে সিদ্ধার্থের প্রথম আলাপ হয় “বিগ বস 13” এর ঘরে। প্রথম দিকে তাদের মধ্যে খুব একটা বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক না থাকলেও ধীরে ধীরে তাদের মধ্যে একটা সম্পর্কের সৃষ্টি হয়। তাদের দুজনের কেমিস্ট্রি দর্শকদের এতই ভালো লেগেছিল যে একসাথে “সিডনাজ” বলে সম্বোধন করা হতো তাদের। সিদ্ধার্থ আর শাহনাজ মানুষ হিসেবে একে অপরের বিপরীত হলেও তাদের মধ্যে বন্ধুত্বটা খাঁটি ছিল।

অনেকেই সন্দেহ করতেন তাদের মধ্যে হয়তো বন্ধুত্বের থেকেও বেশি কিছু আছে। শাহনাজ যে সিদ্ধার্থ কে ভালোবাসতেন তা প্রত্যেকেই জানতেন। আর শাহনাজ তা বহুবার স্বীকারও করেছেন। এহেন শাহনাজ সিদ্ধার্থ-কে হারিয়ে আজ বিধ্বস্ত। যারা সামনাসামনি শাহনাজকে এই সময় দেখেছেন তারা জানিয়েছেন শাহনাজ বিশ্বাস করতে পারছেন না যে সিদ্ধান্ত আর নেই। তিনি না খাচ্ছেন আর না-ই ঘুমাচ্ছেন। কারোর সাথে কথাও বলছেন না তিনি। বর্তমানে তার এমন অবস্থা যে এক মুহূর্তের জন্যেও তাকে একা ছাড়া অসম্ভব।

সর্বক্ষণ হাসি মজায় মেতে থাকা মিষ্টি মেয়েটা আজ যেন সিদ্ধার্থের সাথেই সব অনুভূতি চলে গেছে তার। সিদ্ধার্থ আর শাহনাজ একটি শো’তে জানিয়েছিলেন তাদের মধ্যের সম্পর্কের কথা। কিন্তু তারা সেই সম্পর্কের কোন নাম দিতে চাননি। শোনা যাচ্ছিল সবকিছু ঠিক থাকলে এই বছরের শেষেই গাঁটছড়া বাঁধতে চলেছিলেন তারা। কিন্তু আজ আর তা সম্ভব না। সিদ্ধার্থের মা একমাত্র ছেলেকে হারিয়েও আজ শাহনাজ কে সামলানোর চেষ্টা করছেন। আমরা সিদ্ধার্থের আত্মার চিরশান্তি কামনা করি।

About Web Desk

Check Also

“পুষ্পা” ফিল্মের রক্ত চন্দন এর দাম জানেন কত? বিলুপ্ত এই চন্দন কীভাবে এল ফিল্মের সেটে? জানলে আপনিও চমকে যাবেন

সম্প্রতি রিলিজ হয়েছে আল্লু আর্জুনের ফিল্ম “পুষ্পা”। এই ফিল্ম রক্ত চন্দনের কাঠ নিয়ে তৈরি। আজ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.