Breaking News

এই খানে JCB দিয়ে মাটি খোদাই করতে পাওয়া গেল কলস ভর্তি স্বর্ণমুদ্রা, কলস নিয়ে পালালো JCB চালক..

আমাদের দেশে প্রাচীনকালে অনেক সমৃদ্ধ মন্দির, দূর্গ এবং বড় রাজা-মহারাজাদের প্রাসাদ ছিল। আমাদের দেশকে প্রাচীনকালের সোনার পাখি বলা হত। কিন্তু আজ সব দূর্গ,প্রাসাদ মাটির নিচে ধ্বংসাবশেষে পরিণত হয়েছে। অনেক সময় সেই ধ্বংসাবশেষ গুলি খনন করার সময় অনেক গুপ্তধন বের হওয়ার খবর শোনা যায়। উত্তরপ্রদেশের কনৌজ জেলার শিবরামপুরের সিকান্দারপুরের রায়পুর থেকে একই ধরনের গুপ্তধন পাওয়ার খবর এসেছে।

জানা গেছে যে ওই স্থানে জেসিবি দিয়ে একটি বড় টিলা খনন করা হচ্ছিল। খনন করার সময় হঠাৎ খননকারী জেসিবি চালক মাটি থেকে গুপ্তধন বের হতে দেখে। খোঁড়া জায়গা থেকে গুপ্তধন বের হতে দেখে জেসিবি চালক মুগ্ধ হয়ে যান এবং তিনি তৎক্ষণাৎ তার কাজ বন্ধ করে দেন এবং সেখান থেকে একটি কলস বের করে পালিয়ে যান।

বলা হচ্ছে যে কলসটিতে সোনার মুদ্রা ছিল কিন্তু এখনো সেটি নিশ্চিত করা যায়নি যে সেটি আদতে সোনার ছিল নাকি অন্য কিছু। যখন জেসিবি চালক মুদ্রায় ভরা কলস নিয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল তখন অনেক কয়েন সেই জায়গায় পড়ে থাকতে দেখা যায় যা স্থানীয় লোকজন কর্মকর্তাদের হাতে তুলে দেয়। যে ধাতু থেকে কয়েন তৈরি করা হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনাটি সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় পুলিশকে জানানো হয় এবং পুলিশ জেসিবি চালকের খোঁজ করছে বর্তমানে।

এছাড়াও পুলিশ প্রত্নতত্ত্ব বিভাগকে অবহিত করেছেন এই ব্যাপারে। প্রত্নতাত্ত্বিক বিভাগ এই স্থানে পৌঁছে তদন্ত শুরু করেছে। কথিত আছে যে সিকান্দারপুরের এই রায়পুর এলাকায় প্রাচীনকালে অনেক প্রাসাদ এবং সমৃদ্ধ মন্দির ছিল। সিকান্দারপুরের রায়পুর এলাকার ইতিহাস অনেক পুরনো এবং অনেক রাজা মহারাজার সম্পর্কের কথা ইতিহাসে আছে। এই কারণেই হতে পারে সেখানে করা খননের সময় সোনার মুদ্রা এবং আরো অবশেষ পাওয়া যায় এবং ভবিষ্যতেও পাওয়া যাবে।।

About Web Desk

Check Also

বিস্ময়কর ঘটনা: ৪ হাত-পা ওয়ালা শিশু জন্ম নিতেই গ্রামে ঘটে গেলো এই ঘটনা!

প্রকৃতির এক অনন্য রূপ দেখা গেলো সোমবার বিহারের কাটিহার সদর হাসপাতালে। যেখানে চার হাত-পা বিশিষ্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published.