Breaking News

সমস্ত জল্পনার অবসান ঘটিয়ে,এবার সামনে এলো নুসরতের গর্ভের সন্তান এর বাবা কে? স্বীকারও করে নিলেন যশ!

বর্তমান সময়ে টলিউডের সাথে কন্ট্রোভার্সি যেন ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে। এতদিন টলিউডের বিখ্যাত অভিনেত্রী নুসরাত জাহানের তার স্বামী নিখিল জৈনের সাথে দাম্পত্য জীবন নিয়ে মানুষের কৌতূহল ছিল তুঙ্গে। বর্তমানে তার সন্তানের পিতৃ-পরিচয় নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। বেশ কিছুদিন ধরে শোনা যাচ্ছিল টলিউডের অভিনেতা যশ আর নুসরাতের সম্পর্কের কথা। অনেকে এটাও বলেছিলেন নুসরাতের অনাগত সন্তানের বাবা নাকি যশ।

যদিও যশের একটি ভিডিও থেকে জানা গেছিল নুসরাতের সন্তানের বাবা তিনি নন। এমনকি নুসরাতের স্বামী নিখিল জৈনও পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছিলেন এই সন্তান তার নয়। নিখিল জৈনের এমন বয়ানের পর নুসরাত জানিয়েছিলেন নিখিল তার স্বামীই নয়, তারা সহবাসে ছিলেন। নুসরাতের এহেন মন্তব্যে ভস্মে ঘি পড়ে। এই কারণে সেই সময় তাকে নিয়ে দেদার মিম বানানো হয় এবং ট্রোলও করা হয় তাকে। এরপর প্রশ্ন আসে, নুসরাতকে নিয়ে এত কন্ট্রোভার্সি হচ্ছে তাহলে মিমি কেন কিছু বলছেন না!

প্রশ্ন উঠতে থাকে তাদের বন্ধুত্ব নিয়েও। নুসরাত আর মিমির বন্ধুত্বের সম্পর্কে সকলেই জানেন। নুসরাতের বিয়েতেও টলিউড থেকে একমাত্র উপস্থিত ছিলেন মিমি-ই। জানা যাচ্ছিল নিজের সমস্ত কাজ ফেলে প্রিয় বান্ধবীর বিয়েতে শামিল হতে তুরস্কে গিয়েছিল মিমি। এইসব কিছু বাদ দিলেও প্রশ্ন থেকেই যায় তবে নুসরাতের অনাগত সন্তানের বাবা কে? সম্প্রতি একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে নুসরাত আর যশ এক রেস্তরাঁয় খেতে গেছেন।

যশ আর নুসরাতের এই সময়ে একসাথে থাকার কথা যদিও অনেকদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল। এই ধোঁয়াশা কে পরিষ্কার করে দিয়েছেন নুসরাত নিজেই। তার পোস্ট করা বেশ কিছু ছবি দেখে স্পষ্ট হয়ে গেছে যে তারা বর্তমানে একসাথেই আছেন। এমনকি নুসরাতের খেয়াল রাখতেও কোনো কমতি রাখছেন না যশ। তার প্রমাণ মেলে সম্প্রতি ভাইরাল হওয়া ছবিগুলিতে। নুসরাতের হাত ধরে রাস্তা পার করাতে দেখা গেছে যশকে।তাদের একসাথে থাকা ও অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় নুসরাতের যত্ন করা ইঙ্গিত দিচ্ছে তাদের সম্পর্কের। তাহলে কি এই সন্তানের বাবা যশ-ই? এ প্রসঙ্গে আপনাদের গুরুত্বপূর্ণ মতামত আমাদের জানাতে ভুলবেন না।।

About Web Desk

Check Also

বিস্ময়কর ঘটনা: ৪ হাত-পা ওয়ালা শিশু জন্ম নিতেই গ্রামে ঘটে গেলো এই ঘটনা!

প্রকৃতির এক অনন্য রূপ দেখা গেলো সোমবার বিহারের কাটিহার সদর হাসপাতালে। যেখানে চার হাত-পা বিশিষ্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published.