Breaking News

বাড়িতেই মাশরুম চাষ করে কোটি কোটি টাকা ইনকাম করেছে এই মহিলা, তাক লাগিয়ে দিয়েছে সারা বিশ্বে

ভারত একটি কৃষি প্রধান দেশ যেখানে শতশত কৃষক কৃষি কাজ করছে এবং তাদের পরিবার কে চালাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে হিমাচল প্রদেশে বসবাসকারী একজন নারী কৃষক মাশরুম চাষ করে নারীর ক্ষমতায়নে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। দেশজুড়ে মাশরুমের চাহিদা খুব দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে তাই পাহাড়ি এলাকায় এই খাদ্য সামগ্রী চাষ করা খুবই উপকার বলে প্রমাণিত হতে পারে। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক সেই মহিলার কথা যিনি মাশরুম চাষ করে।

হিমাচলের কাংড়া জেলা বসবাসরত শিখা পেশায় একজন কৃষক যিনি সাধারণ সবজি ছাড়াও মাশরুম চাষের কাজ করেন। তিনি নিজেই নিজের মাশরুম চাষ করে প্রচুর উপার্জন করেন পাশাপাশি অন্যান্য নারী কৃষকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকে। শিখা হোয়াইট বাটন মাশরুম থেকে শুরু করে অন্যান্য মাশরুম চাষ করে যা বাজারে উচ্চ চাহিদা রয়েছে। এর পাশাপাশি শিখা বিভিন্ন সবজি বিক্রি করেও লাভ করছে। মাশরুম চাষের জন্য শিখা 8000 টাকা খরচ করে 100 ব্যাগ বীজ কিনে তারপর সেগুলি কে মাঠে রোপন করে ফসল প্রস্তুত করে।

8000 টাকা খরচ করে শিখা সহজে 80 হাজার টাকা মুনাফা অর্জন করতে পারে কারণ সে প্রতি ব্যাগে 2000 টাকা মুনাফা করে। উতকৃষ্ট মানের মাশরুম চাষ করে যাওয়ার কারণে শিখার ক্লায়েন্টের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। শিখাতার মাশরুম বিক্রির জন্য কোন বিজ্ঞাপন দেন না কারণ তার মাসুম গুলি খুব জনপ্রিয়। কাংরা জেলার মানুষ শিখার বাড়ি থেকে মাশরুম কিনে নিয়ে যায় যার কারণে তাকে বাজারে গিয়ে মাশরুম বিক্রির প্রয়োজন পড়ে না।

শিখা নিজের মাশরুম চাষ করে প্রচুর মুনাফা অর্জন করে এবং এর পাশাপাশি তিনি কাংরা জেলার অন্যান্য লোকেদের ও কর্মসংস্থান প্রদান করে। আসুন আমরা আপনাকে বলি যে মাশরুম চাষের জন্য রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় সরকার বিভিন্ন কেন্দ্রে প্রশিক্ষণ প্রদান করে যেখানে বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে মাশরুম চাষ এবং যত্নের জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এমন পরিস্থিতিতে যদি আপনিও মাশরুম চাষ করে অর্থ উপার্জন করতে চান তাহলে আপনি এই সরকারি প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।।

About Web Desk

Check Also

25 বছর ধরে মানুষকে বোকা বানাচ্ছেন অক্ষয় কুমার, এবার বেরিয়ে আসলো আসল তথ্য, বিস্তারিত জেনে নিন…

বলিউড অভিনেতা অক্ষয় কুমার চমৎকার অভিনয়ের জন্য পরিচিত। অক্ষয় প্রতিটি চরিত্রে ভালো অভিনয় করে এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *