Breaking News

30 বছর ধরে কর্মস্থলে পায়ে হেঁটে যাতায়াত করতেন এই গ্রামের মানুষেরা! পাঁচ দিনে বাস চালু করে সমস্যার সমাধান করলেন এই জেলাশাসক!

বাস আর ট্রেন সাধারন মানুষের জীবনের অতি প্রয়োজনীয় যানবাহন। সাধারণ মানুষের পক্ষে গাড়ি কেনা সম্ভব নয়। তাই তাদের পরিবহনের জন্য বাস আর ট্রেন-ই একমাত্র ভরসা। বর্তমান সময়ে বাস আর ট্রেনের সুবিধা প্রায় প্রতিটি জায়গাতেই পাওয়া যায়। আপনারা কি জানেন ভারতে এমন একটি গ্রাম আছে যেখানে তিরিশ বছর ধরে বাস আর ট্রেন এর কোনো সুবিধা উপলব্ধ ছিল না। এই কারণে গ্রামের মানুষদেরকে দুই থেকে তিন কিলোমিটার পথ হেঁটে পাশের গ্রামে যেতে হতো বাস বা ট্রেন ধরার জন্য।

দিনের বেলা খুব একটা বেশি অসুবিধা না হলেও রাতের বেলা এই দুই থেকে তিন কিলোমিটার রাস্তা হেঁটে যাওয়া খুবই কষ্টসাধ্য ছিল গ্রামের মানুষদের জন্য। তামিলনাড়ুর করুপ্পমপলয়াম্ গ্রামের মানুষদের 30 বছর ধরে স্ট্রাগল করতে হয়েছে গ্রামের প্রধান সড়কে যাওয়ার জন্য। বিশেষ করে রাতের বেলা আর বর্ষার সময় এই গ্রামের মানুষদের গ্রামের পথ দিয়ে হেঁটে বাস বা ট্রেন ধরার জন্য এতটা পথ যাওয়া খুবই কষ্টের ছিল।

তবুও প্রশাসন থেকে তারা কোনো সাহায্য পাননি। যদিও যখন জেলা কালেক্টর টি প্রভুশংকর গ্রামবাসীদের এমন অবস্থার কথা জানতে পারেন তিনি গ্রামবাসীদের সাথে কথা বলে তাদের সমস্ত সমস্যার কথা শোনেন এবং প্রতিশ্রুতি দেন তাদের সব সমস্যার সমাধান তিনি করবেন। এর ঠিক পাঁচ দিন পর থেকে এই গ্রামে বাস চলাচল শুরু হয়ে যায়। টি প্রভুশংকর জানান যে এই গ্রামে 220টির বেশি পরিবার বসবাস করে তাই বাস চলাচলের সুবিধা না থাকায় এতদিন সেখানকার প্রতিটি মানুষের খুবই অসুবিধার শি-কা-র হতে হয়েছে।

তিনি আরও বলেন এই গ্রামে প্রথম থেকেই বাস চলাচলের সুবিধা না থাকার কারণে সেই ভাবে এই বিষয়টি প্রশাসনের নজরে পড়েনি। টিএনএসটিসি করুর ডিভিশনের সাথে কথা বলে এই গ্রামে বাস চলাচলের ব্যবস্থা করানো হয়েছে। এখন থেকে ওই গ্রামে দুটি বাস চলাচল করবে। গ্রামের বেশিরভাগ মানুষই করুর শহরে কর্মরত হওয়ায় তাদের এতদিন যাতায়াতের অসুবিধা হয়ে আসছিল তবে এবার থেকে আর সেই অসুবিধা হবে না বলেই আশাবাদী সকলে।।

About Web Desk

Check Also

শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান এর সাথে ডেট করেছিলেন জুহি চাওলার মেয়ে, জল্পনা তুঙ্গে, অবশেষে মুখ খুললেন অভিনেত্রী…

শাহরুখ খানকে বলিউডের বাদশা বলা হয় এবং বিখ্যাত অভিনেত্রী জুহি চাওলাও একসময় দর্শকদের হৃদয়ে রাজত্ব …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *