Breaking News

প্লাস্টিক ম্যান অফ ইন্ডিয়া: এই ব্যক্তি বর্জ্য প্লাস্টিক দিয়ে রাস্তা তৈরি করে গোটা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে, অনেক দেশই গ্রহণ করছে তার এই প্রযুক্তি।

আমরা সবাই জানি প্লাস্টিকের অতিরিক্ত ব্যবহার বর্তমানে পরিবেশ দূষণের অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিন্তু প্লাস্টিক আমাদের রোজনামচার জীবনে কোনো না কোনোভাবে প্রয়োজন পড়েই। প্লাস্টিক এমন এক দ্রব্য যা মাটিতে মেশে না, যা ক্ষয় হয়না, এমনকি রিসাইকেল পর্যন্ত হয় না। যদিও বর্তমানে চেষ্টা করা হচ্ছে প্লাস্টিককে রিসাইকেল করার। মাদুরাই এর “TCE ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ”এর এক অধ্যাপক বহু বছর ধরে প্লাস্টিক রিসাইকিলিং এর উপর কাজ করে আসছেন।

এমনকি তিনি প্লাস্টিক ব্যবহার করে সড়ক নির্মাণও করেছেন। তাঁর এই প্রচেষ্টার কারণে তিনি “প্লাস্টিক ম্যান অফ ইন্ডিয়া” নামে খ্যাত। প্লাস্টিক নিয়ে কাজ করার জন্য তিনি ভারত সরকার দ্বারা “পদ্মশ্রী” সম্মানে ভূষিত হয়েছেন। মাদুরাইয়ের “TCE ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ” এর প্রফেসর রাজগোপালান্ বাসুদেবান্ কেমিস্ট্রি পড়ান। তিনি 2002 সালে শিয়েগরাজর কলেজের পরিসরে প্লাস্টিক ব্যবহার করে সড়ক নির্মাণ করেন। 10 বছর ধরে বহু পরিশ্রম করার পর তাঁর এই টেকনিক সরকার দ্বারা মান্যতা পায়।

শোনা যায় তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতা তাঁর এই টেকনিক সম্বন্ধে জানার পর ভীষণ প্রশংসা করেন এবং তাকে সর্বতোভাবে সাহায্য করার প্রতিশ্রুতিও দেন। এরপর প্রফেসর বাসুদেবান্ এর এই টেকনিক গোটা দেশে প্রসিদ্ধ হয়ে যায়। তাঁর এই টেকনিক অনেক কোম্পানিই কিনতে চেয়েছিল, কিন্তু তিনি নিঃশুল্ক ভাবে ভারত সরকারকে তাঁর এই টেকনিক দান করেন। তাঁর এই টেকনিক ব্যবহার করে বহু সড়ক নির্মাণও করা হয়েছে।

এর থেকে প্রেরণা পেয়ে সড়ক পরিবহন তথা রাজমার্গ মন্ত্রণালয় প্লাস্টিকের একটা বড় অংশ ব্যবহারের জন্য মিশন শুরু করেন। এই মিশন এর অন্তর্গত 26 হাজার মানুষ প্রতিদিন প্লাস্টিক দ্বারা নির্মিত আবর্জনা জড়ো করেন। এইসব আবর্জনা থেকে এখনও পর্যন্ত প্রায় এক লক্ষ কিলোমিটার রাস্তা তৈরি করা হয়েছে। প্রফেসর বাসুদেবান্ এর এই টেকনিক শুধুমাত্র ভারতেই নয় বিদেশেও ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রফেসর বাসুদেবান্ এর এই চিন্তাভাবনাকে আমরা সম্মান জানাই।।

About Web Desk

Check Also

সৌন্দর্যের দিক থেকে দীপিকা পাডুকোনকে হার মানাবে রণবীর সিং এর বোন।

বিখ্যাত অভিনেতা রণবীর সিং তার ভিন্ন স্টাইল এবং উজ্জ্বল অভিনয়ের জন্য পরিচিত এবং তিনি প্রায়ই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *