Breaking News

শরীরের বিশেষ বিশেষ গো-প-ন অংশে ট্যাটু করিয়েছেন এই দক্ষিণী অভিনেত্রীরা, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল

বলিউডের অভিনেতা অভিনেত্রী দের জীবনযাত্রা দেখে অনেকেই সেই রকম বিলাসবহুল জীবন যাপন করতে চান। তবে আজ আমরা কথা বলবো দক্ষিণের অভিনেত্রী দের নিয়ে। দক্ষিণে এমন অনেক অভিনেত্রীই আছেন যারা তাদের সৌন্দর্য এবং অভিনয় দিয়ে লক্ষ লক্ষ মানুষের মন জয় করেছেন। এমন অনেক অভিনেত্রী আছেন যারা সোশ্যাল মিডিয়ায় খুবই একটিভ থাকেন।

তারা তাদের জীবনের মুহূর্ত এবং নিজেদের ছবিও শেয়ার করে নেয় ফ্যানেদের সাথে। দক্ষিণী অভিনেত্রীরা তাদের অভিনয় এবং সৌন্দর্যের জন্য বিখ্যাত নয় তারা তাদের ফ্যাশন স্টাইল জন্য বিখ্যাত। এখনকার দিনে অনেকেই নিজের শরীরে ট্যাটু করতে পছন্দ করেন। আজ আমরা এমন কিছু অভিনেত্রীকে নিয়ে কথা বলব যাদের ট্যাটু আছে। তাহলে আসুন জেনে নেয়া যাক সেইসব অভিনেত্রী দের।

• প্রিয়া মনি- দক্ষিণের বিখ্যাত অভিনেত্রী প্রিয়া মনি নিজের কব্জিতে ট্যাটু করেছেন। ট্যাটু ডিজাইন লেখা আছে, “বাবার মেয়ে”এটি দেখায় যে সে তার বাবাকে কতটা ভালোবাসে।
• নয়নতারা- নয়ন তারাও দক্ষিণ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি একজন সফল অভিনেত্রী। তার ও কব্জিতে নাম লেখা আছে, প্রভু দেবার। যদিও তারা এখন আলাদা হয়ে গেছেন কিন্তু তিনি নামটি মুছে ফেলেন নি।

• সামান্থা আক্কেনিণী- সামান্থা দক্ষিণ অন্যতম সুন্দরী অভিনেত্রী দের মধ্যে একজন। তিনি তার ডান হাতের কব্জির উপর একটি “ভাইকিং” ট্যাটু করিয়েছেন এবং সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হল তার স্বামী নাগা চৈতন্য ও একই ট্যাটু করিয়েছেন। এই ট্যাটুটির অর্থ হল নিজের পরিচয় তৈরি করা। এটি ছাড়াও সামান্থার গলার পিছনে “ওয়াইএমসি” এবং তার স্বামী নাগা চৈতন্যের স্বাক্ষরের একটি ট্যাটু আছে।

• শ্রুতি হাসান- শ্রুতি হাসান দক্ষিণের অন্যতম সফল অভিনেত্রী। তিনি ট্যাটু খুব পছন্দ করেন। তার শরীরে মোট পাঁচটি ট্যাটু রয়েছে।
• রশ্মিকা মান্ডান্না- রশ্মিকা তার অভিনয় দিয়ে কয়েক কোটি মানুষকে মুগ্ধ করেছেন। আজকের সময়ে বলা যেতে পারে তিনি অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী। তিনি ও ট্যাটু খুব পছন্দ করেন। তার ডান হাতে “অপরিবর্তনীয়” লেখা একটু ট্যাটু আছে। এটির অর্থ হলো’ “যা পরিবর্তন করা যায় না।।”

About Web Desk

Check Also

দিব্যা ভারতীর জীবনে ছিল অনেক গোপন কাহিনী, জেনেনিন কি হয়েছিল 5 এপ্রিল 1993 এর রাতে

অভিনেত্রী দিব্যা ভারতীর নাম শুনলেই এক মিষ্টি মুখের মেয়ের কথা মনে পড়ে। খুব অল্প বয়সেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *