Breaking News

মুকেশ আম্বানি ঠিক প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে নিরাপত্তা পেয়ে থাকেন, প্রতিমাসে ঠিক কত টাকা নিরাপত্তার জন্য খরচ হয় জানলে চোখ কপালে উঠবে।

আমাদের দেশের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তির নাম জিজ্ঞাসা করলেই আমাদের মনে পড়ে মুকেশ আম্বানির কথা। তিনি আমাদের দেশের সবথেকে ধনী ব্যক্তির পাশাপাশি সবথেকে শক্তিশালী ব্যক্তি ও তাকে বলা হয়। পৃথিবীর অন্যান্য ধনী ব্যবসায়ীদের মধ্যেও মুকেশ আম্বানি অন্যতম। এহেন মুকেশ আম্বানি তার লাগজারি লাইফ স্টাইলের জন্য সবসময় চর্চায় থাকেন।

বর্তমান সময়ে রিলায়েন্স কোম্পানির চেয়ারম্যান এবং পৃথিবীর টপ 10 বিজনেসম্যান দের অন্যতম মুকেশ আম্বানি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মতোই জেড প্লাস সিকিউরিটি পেয়েছেন ভারত সরকারের পক্ষ থেকে। আপনারা কি জানেন মুকেশ আম্বানির বর্তমান সম্পত্তি কত? “ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার ইন্ডেক্স” এর মতে মুকেশ আম্বানির প্রায় 7.5 বিলিয়ন ডলারের সম্পত্তি আছে।

আজ থেকে প্রায় 7 বছর আগেই তিনি জেড প্লাস সিকিউরিটি পেয়েছিলেন। অবশ্য এই সিকিউরিটির জন্য তাকে যথেষ্ট টাকা খরচ করতে হয়। জেড প্লাস সিকিউরিটিতে প্রায় 55 টা পার্সোনাল সিকিউরিটি গার্ড দেওয়া হয়ে থাকে, যার মধ্যে থেকে কম করে দশ জন এলিট লেভেলের ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড হয়। যারা 24 ঘন্টা তার সুরক্ষার খেয়াল রাখে।

এই সিকিউরিটিতে অত্যাধুনিক হাতিয়ার এর সাথে প্রায় এনএসজি -র দশ জন খতরনাক কমান্ডো থাকে। মুকেশ আম্বানির সিকিউরিটিতেও প্রায় 55 জন সিকিউরিটি গার্ড থাকে। যে কারণে মুকেশ আম্বানি যখন কোথাও যান, তার আশেপাশে অনেক মার্সিডিজ দেখা যায়। সেই মার্সিডিজ গাড়ির মাঝখানের বুলেটপ্রুফ বিএমডব্লিউতে মুকেশ আম্বানি থাকেন।

এক তথ্য থেকে জানা যায় এই জেড প্লাস সিকিউরিটির জন্য তাকে প্রতি মাসে 16 লাখ টাকার বেশি ভারত সরকারকে দিতে হয়। এছাড়াও সমস্ত গার্ডের জন্য থাকা ও খাওয়ার সুবন্দোবস্ত তাকে করতে হয়। শুধু জেড প্লাস সিকিউরিটিই নয়, মুকেশ আম্বানির পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের জন্য নিজস্ব এজেন্সি আছে। যে এজেন্সির গার্ডেরা 24 ঘন্টা তাদের সুরক্ষা দিয়ে থাকে।।

About Web Desk

Check Also

দিব্যা ভারতীর জীবনে ছিল অনেক গোপন কাহিনী, জেনেনিন কি হয়েছিল 5 এপ্রিল 1993 এর রাতে

অভিনেত্রী দিব্যা ভারতীর নাম শুনলেই এক মিষ্টি মুখের মেয়ের কথা মনে পড়ে। খুব অল্প বয়সেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *