Breaking News

বাচ্চাদের অনলাইন ক্লাস করতে অসুবিধা হচ্ছে তাই 11 বছরের মেয়ে দীপিকা শুরু করলো নিজের পাঠশালা, নাম দিয়েছে প্রেরণা

আমরা সকলেই জানি যে ক-রো-না ম-হা-মা-রী-র কারণে বাচ্চাদের পড়াশোনা মারাত্মকভাবে ক্ষ-তি-গ্র-স্ত হয়েছে। সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে সেসব বাচ্চাদের উপর যাদের অনলাইন লেখাপড়া করার কোন উপায় নেই। এমন পরিস্থিতিতে মাত্র 11 বছরের আদিবাসী মেয়েটি এমন কাজ করেছে যা বড় প্রতিষ্ঠানগুলো করতে পারেনি। মাত্র 11 বছর বয়সী দীপিকা নিজে পঞ্চম শ্রেণীতে পড়াশোনা করছে,

তবে ম-হা-মা-রী-র যুগে ছোট বাচ্চাদের ও পড়াচ্ছে। পড়াশোনার সচেতনতা দেখে গ্রামের লোকেরা দীপিকাকে শিক্ষক দিদি নামে ডাকে। দীপিকা রাঁচির নিকটে অবস্থিত চাঁদপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। সে মাত্র 11 বছর বয়সেই পরায় এবং লোকেরা তাকে শিক্ষক দিদি হিসেবে চেনে। আসলে দীপিকা ছোটবেলা থেকেই লেখাপড়ায় খুবই আগ্রহী। তার বাবা আলোক মিনজ জানিয়েছেন বড় হওয়ার সাথে সাথে দীপিকা শিক্ষিকা হতে চায়।

ক-রো-না ম-হা-মা-রী চলাকালীন লকডাউনে স্কুল বন্ধ থাকার কারণে সমস্ত শিশু পড়াশোনায় কম এবং খেলার প্রতি বেশী মনোনিবেশ করতে শুরু করেছে। এটি দেখে দীপিকা এই বাচ্চাদের পড়ানোর কথা ভাবেন এবং তার বাড়ির উঠোনে শিক্ষকতা শুরু করে। আজ প্রায় 80 টা শিশু তার কাছে পড়াশোনা করতে আসে। এত অল্প বয়সে দীপিকার তার স্কুলের নাম রেখেছে “শিক্ষা প্রেমীদের পাঠশালা।”

তাদের স্কুলে ব্ল্যাকবোর্ডের ব্যবস্থাও রয়েছে। সে তার গ্রামের বড় বাচ্চাদের অনুপ্রাণিত করছেন যাতে তারা তাদের স্কুল বড় করতে পারে। দীপিকা প্রথমে বড় ব্যাচ পরান তারপরে ছোট ব্যাচ। সে এমন শিশুদের পরান যাদের অনলাইনে পড়াশোনা করার কোন উপায় নেই। এই বর্ষাকালেও সে হাল না ছেড়ে বাচ্চাদের পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছে। গ্ৰামে উপস্থিত গ্রন্থাগারের সচিব অজয় কুমার বলেছেন যে,

বৃষ্টি হলে শিশুদের স্কুল এই পাঠাগারে রাখা হয় এবং এখানে বৈদ্যুতিক সংকেতের মেরু বদল করার ব্যবস্থাও রয়েছে যাতে রাতে কোন কারণে আলো না থাকলেও শিশুরা তাদের পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারবে। মাত্র 11 বছর বয়সী দীপিকা প্রমাণ করেছে যে কোন ব্যক্তি তার চিন্তা-ভাবনা পরিবর্তন করলে কোন কিছু করাই অসম্ভব নয়। এত কমবয়সী দীপিকা যা করেছেন তার পুরো দেশের জন্য অনুপ্রেরণা চেয়ে কম কিছু নয়।।

About Web Desk

Check Also

দিব্যা ভারতীর জীবনে ছিল অনেক গোপন কাহিনী, জেনেনিন কি হয়েছিল 5 এপ্রিল 1993 এর রাতে

অভিনেত্রী দিব্যা ভারতীর নাম শুনলেই এক মিষ্টি মুখের মেয়ের কথা মনে পড়ে। খুব অল্প বয়সেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *