Breaking News

ফের বলিউডে শোকের ছায়া মা’রা গেলেন এই কিংবদন্তি অভিনেতা,

হিন্দি সিনেমার জনপ্রিয় প্রবীণ অভিনেতা দিলীপ কুমার আজ সকাল 7 বেঁজে 30 মিনিটে পরলোকগমন করেছেন। তিনি মুম্বাইয়ের পিডি হিন্দুজা হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। তার বয়স হয়েছিল 98 বছর। দিলীপ কুমারের চিকিৎসা করা ডাঃ জলিল পার্কার জানিয়েছেন যে, দিলীপ কুমার বহু বছর ধরে অসুস্থ ছিলেন। তিনি বেশ কয়েকবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন।

দিলীপ কুমার গত 2 জুন হাসপাতালে ভর্তি হন। দিলীপ কুমারের এই ভাবে চলে যাওয়াতে বলিউড এবং পুরো দেশের সবাই শোকাহত হয়েছে। তার স্ত্রী সায়রা বানু প্রতিদিন গণমাধ্যমের কাছে তার শরীরের অবস্থা সম্পর্কে আপডেট দিতেন। তিনি শেষ পর্যন্ত তার স্বামীর পাশে ছিলেন। 5 ই জুলাই দিলীপ কুমারের টুইটার হ্যান্ডেল থেকে তার স্বাস্থ্য সম্পর্কে আপডেট দেওয়া হয়।

তিনি একই মাসে দুবার ভর্তি হয়েছিলেন হসপিটালে। সায়রা বানু একটি বিবৃতি জারি করে বলেন যে দিলীপ কুমারের স্বাস্থ্য ধীরে ধীরে উন্নতি হচ্ছে। তিনি এখনও হাসপাতালে আছেন, তবে আপনারা প্রার্থনা করুন। তবে সায়রা বানুর এই স্বাস্থ্য আপডেটের মাত্র দুই দিন পরে দিলীপ কুমার বিদায় জানায় এই পৃথিবী কে।

ব্রিটিশ শাসিত ভারতের পেশোয়ারে 1922 খ্রিস্টাব্দে 11 ই ডিসেম্বর জন্মগ্রহণ করেছিলেন দীলিপ কুমার, তার আসল নাম ছিল মোহাম্মদ ইউসুফ খান। তিনি নাসিক থেকে তার প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণ করেন। রাজ কাপুর তার ছোটবেলাকার বন্ধু ছিলেন। তিনি বলিউডে আসার জন্য তার নাম ইউসুফ খান থেকে দিলীপ কুমার রেখেছিলেন।

তিনি 22 বছর বয়সে তার প্রথম ছবি পেয়েছিলেন। তিনি 1944 সালে তার প্রথম ছবি জোয়ার-ভাটা করেছিলেন। তবে এই ছবিটি বেশি সাফল্য পায়নি। কিন্তু এরপরে পাঁচ দশক ধরে তিনি বলিউডে রাজত্ব করেছেন। দিলীপ কুমার সায়রা বানুকে 1966 সালে বিয়ে করেছিলেন। সায়রা বানু একজন অভিনেত্রী ছিলেন।

তাদের যখন বিয়ে হয় সায়রা বানু দিলীপ কুমারের থেকে 22 বছরের ছোট ছিলেন। দিলীপ কুমার নিজের বলিউড ক্যারিয়ারে অনেক এর ছবি করেছেন। যেমন- দেবদাস, নয়া দৌর, মোগল-ই-আজম, মেলা, নদিয়া কে পার, বাবুল, ফুটপাথ, গঙ্গা-যমুনা, রাম অর শ্যাম, কর্ম। দিলীপ কুমারের শেষ ছবিটি ছিল কিলা, যা 1998 সালে এসেছিল। সরকার তাঁকে অনেক পুরষ্কারেও ভূষিত করেছে।।

About Web Desk

Check Also

দিব্যা ভারতীর জীবনে ছিল অনেক গোপন কাহিনী, জেনেনিন কি হয়েছিল 5 এপ্রিল 1993 এর রাতে

অভিনেত্রী দিব্যা ভারতীর নাম শুনলেই এক মিষ্টি মুখের মেয়ের কথা মনে পড়ে। খুব অল্প বয়সেই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *