Breaking News

একসাথে 34 টি সন্তানের জননী হলেন প্রীতি জিন্তা, লুকিয়ে লুকিয়ে বিয়ে করলেন আমেরিকায়

বলিউডের ডিম্পল রানী অর্থাৎ প্রীতি জিন্টা কে আমাদের অনেকেরই খুব পছন্দ। তিনি খুব কিউট অভিনেত্রী। বর্তমানে তাকে চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে খুব কমই দেখা যায়। তবে এমন এক সময় ছিল যখন তিনি বলিউডের শীর্ষ অভিনেত্রী ছিলেন। শিমলা হিমাচল প্রদেশে 31 শে জানুয়ারি 1975 এর জন্ম প্রীতি জিন্টার বর্তমান বয়স 46 বছর।

এ বয়সে এসেও তাকে খুব সুন্দর দেখায়। প্রীতির বাবা দুর্গা নন্দ জিন্টা ভারতের সেনাবাহিনীতে অফিসার ছিলেন। তার মা নীল প্রভা গৃহিণী ছিলেন। প্রীতি 13 বছর বয়সে একটি দুর্ঘটনায় তার বাবাকে হারান। এই দুর্ঘটনায় তার মাও গুরুতর আহত হয়। তাকে সুস্থ হতে দুই বছর সময় লেগেছিল। এমন পরিস্থিতিতে পরিবারের সমস্ত দায়-দায়িত্ব প্রীতির কাঁধে পড়েছিল।

প্রীতির দীপঙ্কর ও মনিশ নামে দুই ভাই রয়েছে। বড় ভাই দীপঙ্কর ভারতীয় সেনাবাহিনীতে অফিসার এবং ছোট ভাই মনিশ ক্যালিফোর্নিয়ায় থাকে। প্রীতি মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন। একই সময় একটি পার্টিতে তিনি এমন এক পরিচালকের সাথে সাক্ষাৎ করে ছিলেন যিনি প্রীতিকে তার বিজ্ঞাপন সংস্থা থেকে একটি বিজ্ঞাপন করার প্রস্তাব দিয়েছিলেন।

এভাবেই বিজ্ঞাপনের জগতে প্রবেশ করলেন প্রীতি। তিনি লিরিল সাবান এবং বিভিন্ন চকলেট বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রচুর খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। এর পরে তিনি শেখর কাপুর পরিচালিত তারারাম্পাম ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পান। এই ছবির মাধ্যমে প্রীতির বলিউডে আত্মপ্রকাশ যেখানে হৃত্বিক রোশন সেই সিনেমার নায়ক হয়েছিলেন কিন্তু কোন কারণে ছবিটি যথাসময়ে তৈরি করা যায়নি।

এমন পরিস্থিতে শেখর কাপুর পরিচালক মণি রত্নম কে তার আসন্ন ছবি দিল সে কাস্ট করার অনুরোধ করেছিলেন। শাহরুখ খান এবং মনীষা কৈরালা অভিনীত এ ছবিতে তিনি অভিনয় করেছিল মাত্র কুড়ি মিনিট তবে তিনি তাঁর অভিনয় দর্শকদের মন জয় করেছিলেন। প্রধান অভিনেত্রী হিসেবে তার প্রথম ছবিটি ছিল সোলজার।

ববি দেওয়াল অভিনীত সিনেমা টি বক্সঅফিসে সুপারহিট বলে প্রমাণিত হয়েছিল। ‌এরপরে প্রীতি কেয়া কেহেনা, মিশন কাশ্মীর, বীরজারা, কাল হো না হো, চোরি চোরি চুপকে চুপকে, কই মিলগেয়া র মতন অনেক ছবিতে কাজ করেছিলেন। তার শেষ ছবি ছিল ভাইয়াজি সুপারহিট। প্রীতিও তার বিয়ে ওর স্বামীর জন্য শিরোনামে ছিলেন। তিনি আমেরিকার নাগরিক জীন গুডেনফে কে খুব গোপনীয়ভাবে বিয়ে করেছিলেন।

তাদের বিয়ে ভারত থেকে কয়েকশো কিলোমিটার দূরে লস এঞ্জেলেসে হয়েছিল। সেই অনুষ্ঠানে ছিল কেবল তার নিকট আত্মীয় বন্ধু-বান্ধবেরা। বিউটি এতটাই গোপন ভাবে হয়েছিল যে তাদের বিয়ের ছবিগুলো ছয় মাস পরে সবার সামনে আসে। আপনি যেনে অবাক হবেন যে প্রীতি জিন্টার 34 জন সন্তানের জননী।

এই বিবাহ থেকে এই সমস্ত সন্তান সে পায়নি। তিনি তাদের সবাইকে দত্তক নিয়েছে। বাস্তবে 2009 সালে তারা ঋষিকেশ এর 34 জন অনাথ মেয়েকে একসাথে দত্তক নিয়ে ছিলেন এবং তিনি তার জন্মদিনে এই শুভ কাজটি করেছিলেন। বছরে কমপক্ষে দু’বার সে তার কন্যাদের সাথে দেখা করতে যায়। মিডিয়াতেও তার এই সিদ্ধান্তের প্রশংসা করা হয়েছে। তাদের দেখে অনেক লোক শিশুদের দত্তক নিতে অনুপ্রাণিত হয়েছিল।।

About Web Desk

Check Also

দেশের জন্য শহীদ হয়েছেন ছেলে, বাবার চোখে জল নিয়ে শেষবারের মতো স্যালুট জানালেন ছেলেকে…

উত্তরাখণ্ডের বাগেশ্বরে অবস্থিত ত্রিশূল পর্বতে পর্বতারোহণ অভিযানের সময় নৌবাহিনী লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রজনীকান্ত যাদব একটি হিমবাহের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *