Breaking News

“বাতকর্ম করা যাবে না, বয়সে দু বছরের ছোট হতে হবে” এমন পাত্র চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলড এই মহিলা..

ভারতের প্রথম সারির একটি দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত বিবাহ সংক্রান্ত একটি লেখা সম্প্রতি ভাইরাল হয়েছে। ভারতবর্ষে সাধারণত জাত-পাত-ধর্ম-বর্ণ -র প্রতি জোর দেওয়া হয়ে থাকে। কিন্তু সেই বিজ্ঞাপনটিতে এমন কোনো চাওয়াই ছিল না।

ঐ বিজ্ঞাপনে এই ৩০ বছরের পাত্রী নিজের জন্য উপযুক্ত পাত্রের বর্ণনা দিয়েছে। এরপর থেকেই তুমুল হাসাহাসি হয়েছে বিজ্ঞাপনটিকে কেন্দ্র করে। ঐ মহিলাটি নিজেকে “নারীবাদী” বলে পরিচয় দিয়েছেন। তিনি চেয়েছেন তাঁর হবু বরের যেন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসা থাকে, সাথে বাঙলো বা ২০ একরের ফার্ম হাউস যেন থাকে।

তিনি নিজেকে পুঁজিবাদের বিরোধী বলেছেন বিজ্ঞাপনটিতে। এসব নিয়ে অবশ্য কোনো ট্রোল হয়নি। এরপরের তাঁর চাহিদার কারণেই মূলত এত শোরগোল। ঐ বিজ্ঞাপনে ৩০ বর্ষীয় মহিলাটি জানান তিনি আদ্যপান্ত নারীবাদী, তাঁর দেহে রয়েছে পিয়ার্সিং। সমাজসেবী সংস্থায় তিনি কর্মরত। তিনি এক সুদর্শন, স্বাস্থ্যবান পুরুষ খুঁজছেন।

যার বয়স ২৫ থেকে ২৮ এর মধ্যে হবে। কোনোমতেই পাত্রের বয়স ২৮ এর বেশি হলে চলবে না। পাশাপাশি জানতে হবে রান্না করতে। আবার দুটি জৈবিক কর্ম করতে পারবে না পাত্র। এক বাতকর্ম করতে পারবে না আর আর দ্বিতীয় ঢেঁকুর তুলতে পারবে না পাত্র। এই “অতি সামান্য” চাহিদায় হেসে লুটোপুটি খাচ্ছে নেট-নাগরিকেরা।

এর সাথে চলছে ক্রমাগত কটাক্ষ। তথাকথিত নারীবাদীরা যেন পুরুষকে এক মাংস পিণ্ড ভেবে রেখেছে। যাঁরা শুধু নারী জাতির দাসত্ব করবে। কিন্তু নারীবাদের আসল অর্থ তো পুরুষ পায়ের কাছে আনা না বরং পুরুষের সমকক্ষী হওয়া প্রতিটি ক্ষেত্রে। আপনাদের মন্তব্য কমেন্টস করে আমাদের জানান।।

About Web Desk

Check Also

বিস্ময়কর ঘটনা: ৪ হাত-পা ওয়ালা শিশু জন্ম নিতেই গ্রামে ঘটে গেলো এই ঘটনা!

প্রকৃতির এক অনন্য রূপ দেখা গেলো সোমবার বিহারের কাটিহার সদর হাসপাতালে। যেখানে চার হাত-পা বিশিষ্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published.