Breaking News

এই গ্রামের নদীতে ভাসছে 200 ও 500 টাকার নোট, খবর পেয়ে গ্রাম বাসীরা জলে নেমে পড়লেন

অনেক টাকা রোজগার করবে এমন স্বপ্ন প্রত্যেকেই দেখে। কিন্তু কেউ সেটা অর্জন করার জন্য কঠোর পরিশ্রম করে আবার কেউ কেউ শর্টকাটের পথ ধরে। আবার কারোর ভাগ্য এতটাই ভাল হয় যে তারা কেবল ভাগ্যের ভিত্তিতে অর্থ উপার্জন করে। বলা হয় যে গাছে টাকা জন্মায় না বা আকাশ থেকে টাকা পড়ে না, এটিকে অর্জন করতে অনেক পরিশ্রম লাগে।

কিন্তু আপনি যদি নদীর জলে টাকা ভেসে যেতে দেখেন তখন কি হবে। আপনি অবশ্যই সেটি নেওয়ার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়বেন। কেউই এই সুবর্ণ সুযোগ টি মিস করতে চাইবেন না। ঠিক এমনই দৃশ্য দেখা গেল রাজস্থানের আজমির শহরে। 200 এবং 500 টাকার নোট রবিবার আজমিরের আন সাগর রদে ভাসতে দেখা গেছে।

লোকেরা এটি দেখে নেওয়ার জন্য সেখানে প্রচুর ভিড় জমায়। তারা কোন দিক না দেখে নদীতে ঝাঁপ মারে এবং প্রত্যেকে যতটা সম্ভব নোট সংগ্রহ করার চেষ্টা করে। এমনকি পৌর কর্পোরেশনের কর্মীরাও নিজেদেরকে থামাতে পারেননি সেই কাজটি করার থেকে। তারা যখন এই ব্যাপারটি জানতে পারে তারাও নদীতে একটি নৌকা নিয়ে টাকা তুলতে যায়।

এদিকে পুলিশকে বিষয়টি জানানো হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে লাঠিপেটা করে লোকজনদের তাড়িয়ে দিতে শুরু করে। তারা পৌর কর্পোরেশন এর লোকদের কাছ থেকেও টাকা নিয়ে নেয়। এছাড়া নদীতে যে টাকা ছিল তারা সেগুলো সংগ্রহ করে। এখন প্রশ্ন উঠছে যে 200 এবং 500 এর এতগুলো নোট কিভাবে নদীতে আসে।

সেখানে উপস্থিত এক ব্যক্তি বলেন যে আমরা একজনকে একটি নোট ভর্তি ব্যাগ জলে ফেলতে দেখেছি। সে ব্যাক্তি ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়। তারপরে সকলে এই ব্যাগে থাকা টাকা নেওয়ার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ে। পুলিশ এখন এই ব্যাপারে তদন্ত করছে কিন্তু তারা এখনো বুঝতে পারছে না যে কেন সেই ব্যক্তি এতগুলো নোট জলে ফেলতে এসেছিলেন।

পুলিশ সন্দেহ করেছে ওই ব্যক্তির বাড়িতে কোন রেড পড়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে, সে সেই ব্যাপারে আগে থেকে জেনে যাওয়ায় সেই ব্যক্তি টাকার ব্যাগটি নদীতে ফেলে দেয়। বিভিন্ন রেডের আগে অনেক ব্যক্তি এরকম কাজ করে থাকে। তবে এ বিষয়ে এখনো কোনো শক্ত প্রমাণ পাওয়া যায়নি। নোটটির ব্যাগটি নদীতে ফেলে কে গেছিল সে ব্যাপারেও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।।

About Web Desk

Check Also

বিস্ময়কর ঘটনা: ৪ হাত-পা ওয়ালা শিশু জন্ম নিতেই গ্রামে ঘটে গেলো এই ঘটনা!

প্রকৃতির এক অনন্য রূপ দেখা গেলো সোমবার বিহারের কাটিহার সদর হাসপাতালে। যেখানে চার হাত-পা বিশিষ্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published.