Breaking News

“যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে” অদম্য ইচ্ছাশক্তি ও কঠোর পরিশ্রমে এই প্রথম এক সুন্দরী বিখ্যাত মডেল হলেন IAS অফিসার

আমরা সবাই নিজেদের পছন্দ অনুযায়ী নিজেদের কেরিয়ার গড়ে তোলার চেষ্টা করি। যদি কেরিয়ারের অন্য কোনো বিকল্প পাই তবে চেষ্টা করি এমন কিছু করতে যার সাথে আমাদের পছন্দ জড়িয়ে থাকে বা আমাদের অভিজ্ঞতা থাকে। কিন্তু আজ আমরা এমন একজনের কথা বলব যে মডেলিং -এ অনেক নাম অর্জন করার পরেও সমাজসেবা করার জন্য একদম বিপরীত প্রফেশন -এর সাথে যুক্ত হন।

যাঁকে সবাই মডেল হিসেবে চিনত, সে প্রথম চেষ্টাতেই IAS অফিসার হয়ে সবাইকে চমকে দেন। আমরা বলছি UPSC -এর সিভিল সার্ভিস পরীক্ষা (2019) -য় রাজস্থানে সিলেক্ট হওয়া ঐশ্বর্য শেওরাণ এর ব্যাপারে। 4 আগস্ট 2020 তে যখন UPSC এর ফলাফল প্রকাশ পায় তখন মানুষ এক নতুন রূপে দেখ, IAS অফিসার ঐশ্বর্য শেওরাণ রূপে। UPSC পরীক্ষায় ঐশ্বর্য ন্যাশনাল স্তরে 93 রাঙ্ক পান।

ঐশ্বর্যের বয়স মাত্র 23 বছর। অল্পবয়সে তিনি যেই সফলতা পেয়েছেন তা প্রশংসনীয়। ঐশ্বর্যের পরিবার বর্তমানে মুম্বাইতে থাকে। তাঁর বাবা অজয় শেওরাণ ভারতীয় সেনাবাহিনীর সাথে যুক্ত আর মা সুমন শেওরাণ একজন গৃহবধূ। বর্তমানে তাঁর বাবা র পোস্টিং তেলেঙ্গানার করিমনগরে। ঐশ্বর্যের বড়ো হয়ে ওঠা, পড়াশোনা দিল্লিতে হয়েছে।

তাঁর প্রাথমিক শিক্ষা সংস্কৃতি স্কুল চাণক্যপুরী থেকে হয়। ঐশ্বর্য স্কুলে হেডগার্ল ছিলেন এবং 97.7% তাঁর একাডেমিক মার্কস ছিল। এরপর তিনি শ্রীরাম কলেজ অব কমার্স থেকে স্নাতক পাস করেন। 2018 সালে IIM ইন্দোরে সিলেকশন হলেও তিনি UPSC পরীক্ষাতেই আগ্রহ প্রকাশ করেন। ঐশ্বর্য 2016 সালের ফেমিনা মিস ইন্ডিয়া তে অংশগ্রহণ করেন এবং ফাইনালেও যান। 2015 তে তিনি মিস দিল্লি হন।

এমনকি 2014 তে মিস ক্লিন এন্ড ক্লিয়ার ফ্রেশ ফেসও তিনি হন। 2016 তে দেশের সবথেকে বড় ফ্যাশন শো ল্যাকমি ফ্যাশন উইক -এও তিনি অংশ নেন। নতুন মডেল হিসেবে একমাত্র তিনিই ছিলেন যে বড় বড় মডেলদের সাথে রাম্পে হাঁটেন। একটি ইন্টারভিউ তে ঐশ্বর্য জানান যে তাঁর মা ঐশ্বর্য রায়ের নাম অনুযায়ী তাঁর নাম রাখেন।

তিনি নিজের মায়ের স্বপ্ন পূরণ করতেই মডেলিং- এ নিজের নাম অর্জন করেন। তিনি প্রথম থেকেই UPSC পরীক্ষা দিতে চেয়েছিলেন। ঐশ্বর্য ভালো করে জানতেন UPSC পরীক্ষা পাস করা কতটা কঠিন। তাই তিনি প্রথমে পরীক্ষার সিলেবাস বোঝার চেষ্টা করেন এরপর 10 মাস তিনি কোনো কোচিং ছাড়া পড়াশুনা করতে থাকেন। এই সময় তিনি বাড়ি থেকে বেড়োন নি আর সোশ্যাল মিডিয়ার থেকেও দূরে ছিলেন। ঐশ্বর্য শেওরাণ IAS হওয়ার পর প্রশংসার ঝড় বয়ে যায় চারপাশ থেকে।

ফেমিনা মিস ইন্ডিয়ার টিমও নিজেদের অফিসিয়াল ট্যুইটার হেন্ডেলে ঐশ্বর্যের প্রশংসা করে লেখেন-” ঐশ্বর্য শেওরাণ, ফেমিনা মিস ইন্ডিয়ার ফাইনালিস্ট, ক্যাম্পাস প্রিন্সেস দিল্লি 2016, ফ্রেশ ফেস উইনার দিল্লি 2015 আমাদের খুব গর্বিত করেছেন, তিনি সিভিল সার্ভিস পরীক্ষায় 93 রাঙ্ক পেয়েছেন।” এত প্রশংসার মধ্যে থেকে একজন ছিলেন IAS অভিষেক সিং। অভিষেক সিং ‘দিল তোড়কে’ গানে অভিনয় করে চর্চায় আসেন। IAS ঐশ্বর্য শেওরাণ-এর সফলতায় আরও একবার প্রমাণিত হয় যে আমরা চাইলেই নিজেদের প্রবল ইচ্ছা আর পরিশ্রমের মাধ্যমে সফলতা অর্জন করতে পারি।।

About Web Desk

Check Also

রেভ পার্টিতে কি হয় তার সত্যতা জানালেন শাহরুখপুত্র আরিয়ান, নিজের মুখেই বললেন চার বছর ধরে মা_দ_ক সেবন করছি…

বিলাসবহুল জীবনযাপন করে সুপারস্টার শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান আজকাল অনেক সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন। মুম্বাই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *