Breaking News

এই মহিলা কোম্পানির চাকরি ছেড়ে, বাড়িতেই 80 রকমের শাকসবজি চাষ করে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে, বিস্তারিত জেনেনিন

আজকাল বাজারে টাটকা ফল এবং শাকসবজির নাম প্রায় হারিয়েই গেছে, কেবল রাসায়নিক সার সমৃদ্ধ ফল এবং সবজিই সব জায়গায় দেখা যায়। শহরগুলির পরিস্থিতি তো আরো খারাপ। একেই সেখানকার মানুষেরা তাদের প্রতিদিনের কাজে ব্যস্ত থাকে। এবং শহরগুলিতে যেখানে থাকার জায়গা খুবই কম, সেখানে মানুষ কিভাবে কৃষিকাজের কথা চিন্তা করবে? তাদের সবসময় একটাই চিন্তা রয়েছে যে, তারা কিভাবে রাসায়নিক সার ছাড়া ফল এবং শাকসবজি পাবে, যাতে তাদের স্বাস্থ্য ভালো থাকবে।

তবে এখন তাদের সেই চিন্তার অবসান ঘটবে। কারণ, বর্তমানে কৃষিকাজের একটি নতুন পদ্ধতি আবিষ্কৃত হয়েছে, যার মাধ্যমে কৃষক ভাইয়েরা খুব কম জমিতে আরো বেশি করে উৎপাদন করতে পারছে এবং এই কৃষক ভাইদের কাছ থেকে অনুপ্রেরণা গ্রহণ করেই বহু মানুষ তাদের নিজেদের বাড়িতে জৈবিক চাষ করে। ফ্রেশ শাক সবজি এবং ফল খাচ্ছেন। এমনই একজন মহিলা হলেন ‘অনু’, যিনি 5 বছর পূর্বে তার 2000 ফুট ছাদটিতে টেরেস গার্ডেন তৈরি করেছিলেন।

যেখানে তিনি 80 টিরও বেশি ফল, ফুল, শাকসবজি এবং ঔষধি গাছ লাগিয়েছিলেন। এই অনু ছিলেন বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা। অনুর ছোটবেলা থেকেই একটি বাগানের খুব শখ ছিল। তাই 2015 সালে, তিনি ”Its time to garden” – নামের একটি কর্মশালাও শুরু করেছিলেন। এই কর্মশালায় তিনি লোকেদেরকে বাগান করার বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিতেন। তিনি তার এই কর্মশালার দ্বারা এখনো পর্যন্ত প্রায় কয়েক হাজার মানুষকে বাগান সম্পর্কে সচেতন করেছেন।

অনু খুব ছোট্ট থেকেই কৃষিকাজে আগ্রহী ছিলেন। প্রায় 14 বছর ধরে তিনি ব্যাঙ্গালোর এবং আমেরিকার কর্পোরেট অফিসে কাজ করেছেন। যেহেতু তার আগ্রহ বাগান করার বিষয়ে ছিল, তাই তিনি বাগান করা শুরু করেছিলেন এবং তাতে সফলও হয়েছিলেন। তার স্বামীও তাকে এই কাজে পুরোপুরি সমর্থন করেছিল। তিনি তার বাড়ির বাগানে বেগুন, টমেটো, বাঁধাকপি, পালংশাক, মেথি, কুমড়ো, মুলা, মটরশুঁটি এবং পেঁয়াজের মতো শাকসবজির চাষ করেছিলেন।

ফলের মধ্যে লেবু, কমলা লেবু, শসা, আপেল, লিচু এবং পেঁপে ইত্যাদি ফলের গাছ রোপণ করেছিলেন। অনু কয়েকটি সহজ পদ্ধতির কথা বলেছিল, যে গুলো জানলে আপনিও আপনার বাড়িতে খুব সহজেই জৈব চাষ করতে পারবেন। অনু বলেছিলেন যে, খুব সহজে একটি পাত্রেই পেঁয়াজ উৎপাদন করা যায়। এর জন্য প্রথমে, একটি পাত্রে পেঁয়াজ রাখতে হবে। তারপরে মাটি দিতে হবে, কিছু দিন পরে পেঁয়াজ অঙ্কুরিত হবে এবং এর পাতাগুলি বাড়তে থাকবে।

আপনি যদি টমেটো উৎপাদন করতে চান তাহলে, একটি পাত্রের মধ্যে মাটি দিন এবং এতে টমেটো রাখুন। তারপর সেটাকে কয়েকদিন এভাবেই রেখে দিন। তার কিছুদিন পর থেকেই টমেটো গাছ হতে শুরু করবে। এই একইভাবে আপনারা সব ফল এবং সবজির চাষ করতে পারবেন। যার ফলে আপনারা টাটকা ফল ও শাকসবজি পেতে সক্ষম হবেন। অনু গাছগুলির সারের জন্য গোবর, নিম তেল, শুকনো পাতা, কীটনাশক ইত্যাদির কথা বলেছিলেন। অনু ঘরে বসেই জৈব কৃষিকাজ করেছিলেন এবং সবাইকে প্রশিক্ষণ দিয়েছিলেন। অনেকেই তার এই কাজের প্রশংসা করেছিলেন।।

About Web Desk

Check Also

দেশের জন্য শহীদ হয়েছেন ছেলে, বাবার চোখে জল নিয়ে শেষবারের মতো স্যালুট জানালেন ছেলেকে…

উত্তরাখণ্ডের বাগেশ্বরে অবস্থিত ত্রিশূল পর্বতে পর্বতারোহণ অভিযানের সময় নৌবাহিনী লেফটেন্যান্ট কমান্ডার রজনীকান্ত যাদব একটি হিমবাহের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *