Breaking News

তিন বছরের মেয়ে ডাক্তারের কাছে চেকআপের জন্য এসে এমন কিছু করল মুহূর্তে ভাইরাল ছবি

করোনার যুগে যেখানে লোকেরা তাদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন হয়েছেন, অপরদিকে লোকজন বর্তমানে হাসপাতালে চিকিৎসকদের কাছে যেতে ভয় পাচ্ছেন। মানুষের মনে এই ভয় চলে এসেছে যে যদি তারা কোন ভাবে হাসপাতাল বা চিকিৎসকের সংস্পর্শে আসে তবে তারাও করোনা আক্রান্ত হয়ে যাবে। এই কারনেই লোকেরা আজকাল হাসপাতালে যেতে ভয় পাচ্ছে।

নাগাল্যান্ড থেকে এমন একটি ঘটনা বেরিয়ে এসেছে যা মানুষের মন জয় করেছে। ঘটনাটি দেখার পর আপনার মনে হতে পারে যে যদি সাহস সঞ্চয় করতে হয় তবে যেন এই ছোট্ট মেয়েটির মতন সাহস থাকে। নাগাল্যান্ডের জুনেহোবিতো জেলার ঘাটাশি তহশিল এর একটি বাচ্চা মেয়ে নিজেই স্বাস্থ্য সেবাকেন্দ্রে চেকআপ করানোর জন্য পৌঁছেছিল যা দেখে চিকিৎসকরা অবাক হয়ে গেছিল।

অবাক করার বিষয় হল এই মেয়েটির বয়স মাত্র তিন বছর। যে বয়সের শিশুরা তার বাবা-মার কোলে থাকে এবং তাদের পৃথিবী তাদের খেলনা গুলোর মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকে সেখানে এই ছোট্ট মেয়েটি একটি মাক্স পড়ে ক্লিনিকে পৌঁছেছে এবং ডাক্তারকে তার অসুস্থতার সম্পর্কে বলছে। এই সাহসী মেয়েটির ছবি টুইটার ব্যবহারকারী ইয়েপথোমিবেন শেয়ার করেছেন।

শুধু তাই নয় তিনি ক্যাপশনে লিখেছেন যে, মেডিকেল কর্মীরা যখন স্বাস্থ্য কেন্দ্রে তিন বছর বয়সী এই বাচ্চাটিকে দেখলেন তখন তাদের মুখে হাসি ফুটে উঠল। মেয়েটির এই চেতনা এবং সাহসের প্রশংসা করা হচ্ছে চারিদিকে। মেয়েটির নাম লিপভি এই অল্প বয়সী একটি মেয়ের এই চেতনা দেখে অন্যান্য লোকেদের এগিয়ে আসা উচিত এবং টিকা প্রক্রিয়াতে অংশগ্রহণ করা উচিত যাতে করোনা শিগগিরই শেষ হয়ে যায়।।

About Web Desk

Check Also

বিস্ময়কর ঘটনা: ৪ হাত-পা ওয়ালা শিশু জন্ম নিতেই গ্রামে ঘটে গেলো এই ঘটনা!

প্রকৃতির এক অনন্য রূপ দেখা গেলো সোমবার বিহারের কাটিহার সদর হাসপাতালে। যেখানে চার হাত-পা বিশিষ্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published.