Breaking News

গ্রামের রীতি ভেঙে, অল্প বয়সে বিয়ে করে জীবন নষ্ট না করে পড়াশোনা করে আইপিএস অফিসার হলেন এই প্রত্যন্ত গ্রামের মেয়েটি

প্রতন্ত গ্রামের কন্যা গ্রামের নাম উজ্জ্বল করলো। বিয়ে করে জীবন নষ্ট না করে , পরিশ্রম করে হয়েছে IPS officer। আসুন জেনে নেওয়া যাক তার জীবন বৃত্তান্ত। হরিয়ানার ছোট্ট একটা গ্রাম সাপলা র গ্রামবাসী কখনো ভাবতে ভাবতেই পারেনি ওনাদের গ্রামের কন্যা আর সাধারণ মেয়ে নেই ।

সে এখন IPS officer। গ্রামের লোক ভীষণ গর্বিত। তার সাথে ভরদ্বাজ পরিবারের সদস্যরা খুব খুশী। শুধু এই জন্য নয় কী গ্রামের কন্যা আইপিএস officer হয়েছে। IPS মনিকা ভরদ্বাজ এর বাবা দিল্লী পুলিশ এ sub-inspector এ ছিলেন। একজন sub inspector এর মেয়ে IPS officer হলে কার না ভালো লাগে। এখন মনিকার সাফল্য দেখে অন্যান্য মেয়েরা ও আইপিএস এর জন্য তৈরী হচ্ছে।

মনিকা এক কৃষক পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। দাদু ঠা কমার কাছে মানুষ বড়ো হোয়েছে। দাদু সেখাতে ন সমাজসেবার কথা , মানবিক কর্ত্যব্য র কথা। তাড়াতাড়ি বিয়ে করে ঘর বাসাতে চায় নি মনিকা। ছোটো গ্রামে তাড়াতাড়ি বিয়ে করে মেয়েরা ঘর বসানোর স্বপ্ন দেখে।

কিন্তু মনিকা র স্বপ্ন ছিল দেশ সেবা করার। গ্রামে যানবাহনের অভাবে কলেজ যাওয়ার সমস্যা থাকলেও মনিকা একাগ্রতার সহিত সব ক্লাস অ্যাটেন্ড করতো। প্রথমে মনিকা private job করত আর UPSC পরীক্ষা র জন্য পড়তো।২০০৯ তে পরীক্ষা এ পাস করে IPS officer হন।

উনি সাউথ ওয়েস্ট ডিস্ট্রিক এ DCP র পদে কাজ করেছেন, PCR unit এ ও উনি কাজ করেছেন। গ্রামে মহিলা পুরুষ এর ভেদাভেদ অনেক বেশী সেই সমস্যা তেও পরতে হয়ে চে। কিন্তু মনিকার মনে ছিলো দেশ সেবার স্বপ্ন আর অদম্য ইচ্ছা তাকে আজ এত সাফল্য দিয়েছে। আমরা তাকে তাঁর কাজের জন্য কুর্ণিশ জানাই।

About admin

Check Also

দেশের প্রথম লেফটেন্যান্ট পদে মেয়ে হিসেবে প্রথম স্থান অধিকার করলেন মহিমা.…জেনে নিন তার সফলতার গল্প…

আমাদের দেশে মহিলা ও কন্যারা পরিবারের দায়িত্বের পাশাপাশি দেশের দায়িত্ব পালন করছে। অতি ক্ষেত্রে তারা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *